সোমবার, ০৪ Jul ২০২২, ০৬:২৬ অপরাহ্ন

যে জন্মেছে সে মরবেই। যার সূচনা হয়েছে তার সমাপ্তি ঘটবেই। এটা খোদা পাকের শাশ্বত চিরন্তন বিধান। এ অমোঘ বিধানের কোন পরিবর্তন পরিবর্ধন নেই। পৃথিবীর বুকে সবচেয়ে চির ও অনড় সত্য হলো মৃ’ত্যু।

বড় ভাই তুষার চন্দ্র দাশ (৩৫) একসময় প্রবাসে ছিলেন। ছুটিতে বাড়িতে আসার পর অসুস্থ হলে তাঁকে ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ইতিমধ্যে তিনি সুস্থ হয়ে ওঠেন। তাঁকে ঢাকা থেকে বাড়িতে আনার জন্য যান ছোট ভাই বিপ্লব চন্দ্র দাশ (৩০) ও শ্যালক প্রণব চন্দ্র দাস (২৬)।

তবে শেষ পর্যন্ত দুই ভাই আর বাড়ি ফিরতে পারেননি। পথেই তাঁদের বহন করা ব্যক্তিগত গাড়িটির নিয়ন্ত্রণ হারালে গাছের সঙ্গে ধাক্কা লাগে। সেখানেই দুই ভাইয়ের মৃত্যু হয়। আজ শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফেনী সদর উপজেলার দেবীপুর এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

তুষার চন্দ্র দাশের বাড়ি চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার ইছাখালী ইউনিয়নের চর শরৎ গ্রামে। নিহত দুই সহোদরের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

পু’লিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, আজ শনিবার সকালে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়ে একটি ব্যক্তিগত গাড়ি ভাড়া করে মিরসরাই ফিরছিলেন তাঁরা। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে গাড়িটি ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফেনী সদর উপজেলার দেবীপুর এলাকায় পৌঁছায়।

সেখানে চালক নিয়ন্ত্রণ হারালে গাড়িটি সড়কের পাশে একটি গাছের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে উল্টে পড়ে। দুর্ঘটনাস্থলেই তুষার চন্দ্র দাশ ও বিপ্লব চন্দ্র দাশ মারা যান। এ ঘটনায় তুষারের শ্যালক প্রণব ও গাড়ির চালক সাজ্জাদ হোসেন (৪০) মারা’ত্মক’ভাবে আহত হয়েছেন।

আরও পড়ুন