শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:৪৩ পূর্বাহ্ন

কুমিল্লার চান্দিনা এলাকায় এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে বাড়ি থেকে নিয়ে দুই দিন আ’টকে রেখে ধ’র্ষণ করার অভিযোগে স্থানীয় একটি মসজিদের ইমামকে গ্রে’প্তার করেছে র‌্যাব। তার নাম আবুল বাশার (৫০)। রোববার গভীর রাতে ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার হোটেল নুরজাহানের সামনে থেকে তাকে গ্রে’প্তার করে র‌্যাব-১১ সিপিসি-২ এর একটি দল।

গ্রে’প্তার আবুল বাশার চান্দিনা উপজেলার শব্দলপুর গ্রামের মৃ’ত মোতালেব মুন্সীর ছেলে এবং একই উপজেলার তীরচর নয়াবাড়ি মসজিদের ইমাম। সোমবার দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

র‌্যাব সূত্রে জানা যায়, গত ২২ জুলাই থেকে ২৪ জুলাই পর্যন্ত ইমাম আবুল বাশার ওই মাদ্রাসা ছাত্রীকে (১৪) উপজেলার বাইরে নিয়ে আটকে রেখে ধ’র্ষ’ণ করে। এতে ধ’র্ষ’ণের শিকার কিশোরী অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে বাড়িতে পাঠিয়ে দেন তিনি। এ ঘটনায় ওই মাদ্রাসা ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে চান্দিনা থা’নায় মা’মলা দায়ের করার পর থেকেই ধ’র্ষ’ক আবুল বাশার আ’ত্মগো’পন ছিলেন। বিষয়টি র‌্যাবের নজরে এলে তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় রোববার গভীর রাতে অভিযান চালিয়ে নূরজাহান হোটেলের সামনে থেকে তাকে গ্রে’প্তার করা হয়।

এ বিষয়ে সোমবার বিকেলে কুমিল্লাস্থ র‌্যাব-১১ সিপিসি-২ এর অধিনায়ক মেজর মোহাম্মদ সাকিব হোসেন বলেন, প্রাথমিক জি’জ্ঞাসাবাদে ইমাম আবুল বাশার জানান, ভিকটিমের পরিবার তাদের মেয়েকে আরবি পড়ানোর জন্য তাকে নিযু’ক্ত করে। আরবি পড়ানোর সুযোগে ওই মাদ্রাসা ছাত্রীকে ফুঁ’সলে উপজেলার বাইরে নিয়ে আ’টকে রেখে ধ’র্ষণ করেন তিনি। দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে জে’লহাজতে পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন