সোমবার, ০৪ Jul ২০২২, ০৯:০৮ অপরাহ্ন

পতৌদি বাড়ির ছোট মেয়ে সোহা আলি খান এবং অভিনেতা কুণাল খেমু। ২০১৫ সালে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন এই জুটি। বিয়ের পর দেখতে একসঙ্গে সাত বছর কাটিয়ে ফেললেন তাঁরা। সোশ্যাল মিডিয়ায় দারুণ সক্রিয় সোহা। খুদে ইনায়া, কিংবা নিত্য দিনের কোনও ক্রিয়াকলাপ, স্বামী কুণালের সঙ্গে সম্পর্কের কেমিস্ট্রি প্রায়শই নজর পড়ে অভিনেত্রীর সোশ্যাল মিডিয়া দেওয়ালে।

ইনস্টাগ্রামে কুণালকে বিবাহবার্ষিকীর শুভেচ্ছা জানিয়ে সোহা লেখেন, ‘শুভ ৭ বছর আমার ভালোবাসা। এমন কোনও দুষ্টুমি নেই যাতে তুমি আঁচড় কাটতে পারোনি। এই কারণেই আমরা সেরা জুটি একে অপরের জন্য’।

অভিনেতা কুণাল খেমুকে বিয়ের দুবছর পরই তাঁদের কোল আলো করে আসে ফুটফুটে কন্যা ইনায়া নাওমি খেমু। বিয়ের আগে বেশ কিছু বছর তাঁরা একে অপরের সঙ্গে সম্পর্কে ছিলেন। বিয়ের আগে থেকেই লিভ-ইন বা স’হবাস করতে শুরু করেছিলেন এই দম্পতি। দুই তারকার সম্পর্কের রসায়ন নেট দুনিয়ায় বেশ জনপ্রিয়। তাঁদের সোশ্যাল মিডিয়া পিডিএ হামেশাই ভালোবাসার রঙ ছড়ায়।

পিটিআইকে দেওয়া পুরনো এক সাক্ষাৎকারে কুণাল খেমু জানিয়েছিলেন, ‘আমরা অন্যকে লিভ-ইন সম্পর্কে থাকার কথা বলি না, তবে একে অপরকে বিয়ে করার আগে এটি আমাদের দুজনের জন্যই চমৎকারভাবে কাজ করেছে’। কুণালকে খুব শীঘ্রই দেখা যাবে ‘কঞ্জুস মক্ষিচুজ’ ছবিতে।

আরও পড়ুন