বুধবার, ২৯ Jun ২০২২, ০৭:৪১ অপরাহ্ন

‘আওয়ামী লীগের কপাল ভালো উল্লেখ করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস বলেছেন, করোনা পরিস্থিতি বৃদ্ধি পাওয়ায় আন্দোলন কিছুটা স্তিমিত রাখা হয়েছে। জনগণ রাজপথে নেমে গেছে। জনতার স্রোতে ১৪৪ ধারা ভেঙে যাচ্ছে। সংক্রমণ কিছুটা কমলে দেখবেন আন্দোলন কাকে বলে। এই সরকার আন্দোলনের তোড়ে ভেসে যাবে।’

বৃহস্পতিবার (২৭ জানুয়ারি) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘বাকশাল-গণতন্ত্র হত্যার কালো দিবস’ উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘ দেশে নতুন করে বাকশাল কায়েম হয়েছে। দেশের মানুষ কথা বলতে পারে না। সাংবাদিকার লিখতে পারে না। লিখলে সাগর রুনির পরিণতি ভোগ করতে হয়, জেলে যেতে হয়। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের নামে টুটি চেপে ধরে রেখেছে। অনেক সাংবাদিক আজ দেশ ছেড়ে চলে যাচ্ছে।’

মির্জা আব্বাস বলেন, ‘আওয়ামীলীগ বলছে, বিএনপি নাকি লবিস্ট নিয়োগ করেছে! লবিস্ট কী জিনিস তাইতো আমরা জানতাম না। ১৪ সালে রাতের আঁধারে ভোট ডাকাতি করে ক্ষমতায় এসে নানা অপকর্ম ঢাকতে আপনারাই অর্থ দিয়ে লবিস্ট নিয়োগ করেছিলেন। আপনারা বিরোধী রাজনৈতিক কর্মীদের গুম করছেন। একদলীয় শাসনব্যবস্থা কায়েম করেছেন, ভোটাধিকার কেড়ে নিয়েছেন তা কি বিশ্ব দেখে না?’

যৌথভাবে এই আলোচনা সভার আয়োজন করে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ও উত্তর বিএনপি। ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির আহ্বায়ক আমান উল্লাহ আমানের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

এতে আরও বক্তব্য দেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ঢাকা দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুস সালাম। সভা সঞ্চালনা করেন ঢাকা মহানগর উত্তরের সদস্য সচিব আমিনুল হক।

আরও পড়ুন