শনিবার, ০২ Jul ২০২২, ১১:২৪ অপরাহ্ন

আর ভিক্ষা করে জীবিকা নির্বাহ করতে চান না। সমাজে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে এবার ইউপি নির্বাচনে প্রার্থী হয়ে ভোট যুদ্ধে নেমেছেন নির্বাচনী মাঠে। কেননা শুধুমাত্র অভাবের তাড়নায় ভিক্ষার থালা নিয়ে গ্রামের নাসিদা বেগম মানুষের দ্বারে দ্বারে হাত পেতেছেন।

একটু সাহায্য সহযোগিতার জন্য চেয়ারম্যান-মেম্বারদের কাছে ছুটে গিয়েছেন। কখনো পাননি স্থানীয় চেয়ারম্যান মেম্বারসহ কারো কাছেই কোনো ধরনের সরকারি সাহায্য সহযোগিতা। তাই এক প্রকার ক্ষোভের বসে নিজেই সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে প্রার্থী হয়েছেন ভোলার লালমোহন উপজেলার বদরপুর ইউনিয়নের ভিক্ষুক নাসিদা বেগম।

ইউনিয়নটিতে ১, ২ ও ৩ নং ওয়ার্ড থেকে সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে তালগাছ প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন তিনি।

স্থানীয়রা জানান, এতদিন দেখেছি গ্রামের মানুষদের দ্বারে দ্বারে ঘুরে যা সাহায্য পেয়েছেন তা দিয়েই তার সংসার চলে। এবার তিনি নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছে। এলাকার লোকজন নিজেরাই খরচ দিয়ে তার প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন।

জানা গেছে, প্রায় বিশ বছর আগে নাসিদা বেগমের স্বামী ফজলু খাঁ মৃত্যুবরণ করেন। তার দুই ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছে। ছেলে আলমগীর স্থানীয় নাজিরপুর বাজারে ভাঙরির ব্যবসা করেন, অপরজন জাহাঙ্গীর, ঢাকায় রিকশা চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করেন। দুই মেয়ে রেশমা ও আকতারী ঢাকায় বাসা-বাড়িতে গৃহপরিচারিকার কাজ করেন।

নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার বিষয়ে নাসিদা বেগমের সাথে কথা হলে তিনি জানান, এর আগে স্থানীয় চেয়ারম্যান মেম্বারদের কাছে গিয়েও কোনো সাহায্য-সহযোগিতা পাননি তিনি। তাই নিজেই নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছেন। সাধারণ মানুষের কাছ থেকে ভিক্ষা করে নির্বাচনের খরচ যোগাচ্ছেন। প্রচার-প্রচারণায় ব্যাপক সাড়াও পাচ্ছেন তিনি। তাই সুষ্ঠু নির্বাচন হলে জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী তিনি।

আর জয়ী হলে অবহেলিত মানুষের কল্যাণে কাজ করার আশ্বাসও দিচ্ছেন নাসিদা বেগম। আর জনগণও তাকে নির্বাচিত করতে নির্বাচনের সকল ব্যয়ভার বহনসহ তার জন্য সকল ধরনের সাহায্য সহযোগিতা করে যাচ্ছেন।

আরও পড়ুন