শনিবার, ০২ Jul ২০২২, ১১:২৭ অপরাহ্ন

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন ঘিরে উত্তাল এফডিসি। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনের (বিএফডিসি) এমডি নুজহাত ইয়াসমিনের কুশপুত্তলিকা দাহ করেছে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট ১৭ সংগঠনের নেতা-কর্মীরা। আজ রবিবার (৩০ জানুয়ারি) দুপুর ১২টার পর পরিচালক সমিতির সামনে কুশপুত্তলিকা পোড়ায় তারা।

এদিকে এমডিকে এফডিসিতে ঢুকতে দেওয়া হবে না- আন্দোলনকারীদের এমন ঘোষণার মধ্যেই এফডিসিতে ঢুকে পড়েন নুজহাত ইয়াসমিন। আর তাই ১৭ সংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্যে চাপা উত্তেজনা বিরাজ করছে। দুপুর ১২টার পর পরিচালক সমিতির সামনে এমডির কুশপুত্তলি পোড়ায় তারা।

১৭ সংগঠনের নেতাকর্মীদের আন্দোলনে উত্তাল এফডিসি। কুশপুত্তলি পোড়ানোর সময় এফডিসিতে উপস্থিত ছিলেন এমডি নুজহাত ইয়াসমিন।নির্বাচনকে কেন্দ্র করে চলচ্চিত্রের ১৭টি সংগঠনের সদস্যদের বিএফডিসিতে ঢুকতে না দেওয়ার বিষয়টি অপমানজনক দাবি করে নির্বাচন কমিশনার পীরজাদা শহীদুল হারুনকে আজীবন নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট সংগঠনগুলো।

এর আগে শনিবার (২৯ জানুয়ারি) ১৮ সংগঠনের পক্ষে পীরজাদা শহীদুল হারুনকে চলচ্চিত্র থেকে আজীবন নিষিদ্ধ করার ঘোষণা দেন পরিচালক সমিতির সভাপতি সোহানুর রহমান সোহান। তিনি জানান, টেলিভিশন অভিনয় শিল্পী সংঘও পীরজাদা হারুনকে নাটকের অভিনয়ে অবাঞ্ছিত ঘোষণার পক্ষে এরকম পোষণ করেছেন।

সোহানুর রহমান সোহান বলেন, ‘পীরজাদা শহীদুল হারুন দল পাঁকিয়ে আমাদের ১৭ সংগঠনের সদস্যদের এফডিসিতে ঢুকতে দেয়নি। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহোদয় নিজে আমাদের প্রবেশের ব্যাপারে অনুমতি দিয়েছেন। তিনি তেজগাঁও জোনের ডিসিকেও এ বিষয়ে জানিয়েছিলেন যেন আমরা ঢুকতে পারি। সেটা জেনেই ১৭ সংগঠনের কার্ডধারী সদস্যরা এফডিসিতে এসেছিলেন নির্বাচনের দিন সকালে। কিন্তু কাউকে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। পীরজাদা হারুন ও এফডিসির এমডি মিলেই নির্বাচনে চক্রান্ত করতে আমাদের ঢুকতে দেননি। তাই আমরা এফডিসির এমডির অপসারণ চাই। সেই সঙ্গে পীরজাদা শহীদুল হারুনকে আজীবন নিষিদ্ধ ঘোষণা করলাম। তাকে আর কোনো দিন চলচ্চিত্র বা নাটকের কাজে নেওয়া হবে না।

আরও পড়ুন