সোমবার, ০৪ Jul ২০২২, ০৭:০৪ অপরাহ্ন

আজ সকালে কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার টনকী ইউনিয়নের সোনারামপুর প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে লাঠি হাতে ভোট দিতে আসেন বৃদ্ধ সফিউল্লাহ (৯৫)।

থরথরে কাঁপছেন, দায়িত্বরত পুলিশ কর্মকর্তার হাত ধরে প্রবেশ করেন ভোট কক্ষে। কিন্তু আঙুলের ছাপ না মিলায় ফিরে যাচ্ছেন তিনি। সফিউল্লাহর মতো ফিরে গেছেন মনির মোল্লা (৬৫) ও জোবেদা খাতুন (৭৮)।

এদিকে দায়িত্বরত প্রিজাইডিং কর্মকর্তারা পরামর্শ দিচ্ছেন দুপুর নাগাদ আরেকবার ভোট কেন্দ্রে আসতে। কেন্দ্রে অনেকে আঙুলে লাগাতে খুঁজছেন ভ্যাসলিন ও সরিষার তেল। বুথে ভোটারদের আঙুলে ভ্যাসলিন লাগাতে দেখা গেছে। একটি বুথে দেখা গেল, ভোটারকে লুঙ্গিতে আঙ্গুল ঘষতে বলা হচ্ছে।

এ সময় বৃদ্ধ সফিউল্লাহ বলেন, অসুস্থ শরীর নিয়ে অনেক কষ্ট করে ভোট কেন্দ্রে এসেছি। শ্বাস টেনে এই বৃদ্ধ ভোটার বলেন- আবার দুপুরে আসতে পারবো কি না জানি না। জোবেদা খাতুন বলেন, কাজ করার কারণে মনে হয় আঙুলের ছাপ মিলছে না। দুপুরে আঙুলে সরিষার তেল লাগিয়ে আসবো।

এদিকে সোনারামপুর কেন্দ্রে এক ঘণ্টায় তিনটি বুথে ৬৫টি ভোটগ্রহণ করা হয়েছে। এর মধ্যে আঙুলের ছাপ না মিলায় ফিরে গেছেন প্রায় ৩০ জন ভোটার।

এ ব্যাপারে প্রিজাইডিং কর্মকর্তা মো. মনিরুল হক জানান, ‘অনেকের আঙুলের ছাপে সমস্যা হচ্ছে। বিশেষ করে বয়স্ক ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে এমনটা হচ্ছে। আমরা তাদের পরামর্শ দিচ্ছি দুপুর নাগাদ আরেকবার আসতে।’

আরও পড়ুন