বুধবার, ২৯ Jun ২০২২, ০৬:৪৮ অপরাহ্ন

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী নির্বাচনের পর ইলিয়াস-নিপুণ ও জায়েদ-মিশা প্যানেলের বিভেদ যেনো আরও পরিষ্কার হয়ে উঠছে। গত ২৮ জানুয়ারি এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার পরেও এখন দুই প্যানেলের প্রার্থীদের মধ্যে কাঁদা ছোড়াছুড়ি চলছে। এরই মধ্যে সমিতি গঠনের আগেই গতকাল (৩০ জানুয়ারি) স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালের সঙ্গে দেখা করেন নির্বাচনে জয়ী শিল্পীদের একাংশ। যেখানে ছিলেন না নির্বাচিত সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চনসহ তাদের প্যানেলের কেউ।

তবে উপস্থিত ছিলেন নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান। এ বিষয়ে জায়েদ বলেন, নির্বাচন পরবর্তী সৌজন্য সাক্ষাতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেছেন তারা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ইলিয়াস কাঞ্চন জানান, বিষয়টি তিনি অবগত নন। তার ভাষ্য, ‘নবনির্বাচিতরা এখনও সমিতির শপথগ্রহণ করিনি। আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্বও বুঝে নিইনি। ওরা ওদের (প্যানেল) মতো সাক্ষাৎ করেছে হয়তো। এখানে আমার বলার কিছু নেই। যেদিন দায়িত্ব গ্রহণ করবো, সেদিন থেকে সমিতির বিষয়গুলো নিয়ে কথা বলবো।’

এদিকে নির্বাচনের পরে ইলিয়াস কাঞ্চন-নিপুণ পরিষদ সংবাদ সম্মেলন করে। প্রধান নির্বাচন কমিশনারের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ তোলেন নিপুণ। পাশাপাশি কিছু স্ক্রিনশট ফাঁস করা হয়। যেখানে ভোটের দিন জায়েদ ও এক পুলিশ কর্মকর্তার যোগসাজশের বিষয়টি উঠে আসে। ঘটনাটি নিয়ে গতকাল সন্ধ্যায় তাৎক্ষণিকভাবে সাংবাদিকদের সামনে কথাও বলেন জায়েদ। তার ভাষ্য, ‘এটা (স্ক্রিনশট) সুপার এডিটেড। নইলে আমার কথোপকথনের অপর লোকের ছবি কোথায়?’

তবে এ বিষয়টি হাস্যকর বলে মনে করেন ইলিয়াস কাঞ্চন। তিনি জানান, যে পক্ষ কথা বলে সে পক্ষের ছবি মেসেঞ্জারে ওঠে না। এটা তখনই উপস্থিত সাংবাদিকদের ধরিয়ে দেওয়া উচিত ছিল।

আরও পড়ুন