শুক্রবার, ০১ Jul ২০২২, ০১:২৬ পূর্বাহ্ন

ঢাকার আশুলিয়ায় রোগীসহ অ্যাম্বুলেন্স আটকে চালক ও হেলপারকে মা’রধর করেছেন আরেকটি মাইক্রোবাসের চালক ও তার বন্ধুরা। এমনকি তারা অ্যাম্বুলেন্সের চাবিও নিয়ে যান। এ সময় অ্যাম্বুলেন্সের ভেতরেই রোগীর মৃ’ত্যু হয়।

মঙ্গলবার দুপুরে বাইপাইল বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

মারা যাওয়া ৯ বছরের শিশু আফসানা গাইবান্ধা সদর থানার মধ্য ধানঘড়ার শাপলা মিল এলাকার আলম মিয়ার মেয়ে। সে ক্যানসারের রোগী ছিল।

অ্যাম্বুলেন্সের চালক-হেলপারকে মা’রধরকারী মাইক্রোবাস চালকের নাম নজরুল ইসলাম। তিনি বাইপাইল এলাকার আব্দুল মজিদের হায়েস গাড়ির চালক।

অ্যাম্বুলেন্সের চালক মারুফ হোসেন বলেন, রোগী নিয়ে গাইবান্ধায় যাচ্ছিলাম। টঙ্গী-আশুলিয়া-ইপিজেড সড়কের নরসিংহপুর এলাকায় একটি মাইক্রোবাস (চ-১৫৭৩২৩) আমাদের সাইড দিচ্ছিল না। আমার হেলপার ইমন মাইক্রোচালককে সাইড দিতে বলেন। এ নিয়ে ইমনের সঙ্গে ওই চালকের কথাকাটাকাটি হয়। পরে তিনি বাইপাইল এলাকায় অ্যাম্বুলেন্সটি আটকে আমাদের মারধর করেন। পরে তারা অ্যাম্বুলেন্সের চাবি নিয়ে যান। চাবি নেওয়ার ১৫ মিনিটের মধ্যেই রোগী মা’রা যায়। পরে পুলিশ এসে রোগীকে স্থানীয় নারী ও শিশু স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যায়।

আফসানার বাবা আলম মিয়া বলেন, আমার মেয়ে ক্যানসারের রোগী ছিল । রংপুর মেডিকেল কলেজ থেকে মহাখালী ক্যানসার হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছিল।

পাভেল নামের এক প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, অ্যাম্বুলেন্সটি বাইপাইল আসামাত্র গাড়িচালক মো. মুরাদ হোসেন, নজরুল ইসলাম, মামুন মিয়াসহ ৭-৮ জন সেটি আটক করে চাবি নিয়ে যায়। অ্যাম্বুলেন্সের রোগীর সঙ্গে থাকা লোকদের নি’র্যাতন করে।

এ ব্যাপারে আশুলিয়া থানার এসআই সামিউল ইসলাম বলেন, মৃ’ত আফসানাকে স্থানীয় হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

আরও পড়ুন