বৃহস্পতিবার, ৩০ Jun ২০২২, ১০:৪৮ অপরাহ্ন

রাজধানীর পল্লবীতে প্রাথমিক স্থরের সরকারি বই বিক্রি করার সময় একটি কিন্ডার গার্টেন স্কুলের প্রধান শিক্ষিকাকে অবরুদ্ধ করেছেন স্থানীয় লোকজন। পরে জাতীয় জরুরি সেবা ‘৯৯৯’ এ ফোন দিয়ে ওই শিক্ষিকাকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার সকাল ১১টায় মিরপুর-১১ নম্বর ঢালের ওপর বড় মসজিদ এলাকায় ঘটনাটি ঘটে। ওই শিক্ষিকার নাম পলি আক্তার। তিনি মিরপুর-১১ নম্বরের ১১ নম্বর রোডের সি ব্লকে শিশু শিক্ষা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা পদে কর্মরত।

স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল ১১টার দিকে শিশু শিক্ষা স্কুল থেকে বস্তায় ভরে বই নিয়ে যাওয়ার সময় কয়েকজন অভিভাবক একটি রিকশা আটক করেন। এরপর রিকশাচালককে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তিনি জানান, স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা এই বই বিক্রি করেছেন। কয়েকজন অভিভাবক স্কুলে গিয়ে দেখতে পান প্রধান শিক্ষিকা পলি একাই স্কুলে রয়েছেন। আর তিনি বিক্রির উদ্দেশে আরও বই বস্তায় ভরেছেন। একপর্যায়ে অভিভাবকসহ স্থানীয়রা ওই শিক্ষিকাকে অবরুদ্ধ করেন। এরপর উত্তেজিত স্থানীয়রা স্লোগান দিতে থাকেন ‘পলি ম্যাডাম বই চোর’।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, শিশু শিক্ষা স্কুলে ১০-১২ জন ছাত্রছাত্রী রয়েছে। করোনার কারণে গত ২ বছর ছাত্রছাত্রী ভর্তি হয়নি। ছাত্রছাত্রী না থাকলেও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটির প্রধান শিক্ষিকা মিথ্যা তথ্য দিয়ে চাহিদার অতিরিক্ত সরকারি বই এনে তা কেজি দরে বিক্রি করছেন। স্থানীয়রা আরও জানান, মিরপুর-১১ নম্বর এলাকার বেশ কয়েকটি কিন্ডার গার্টেন স্কুলও চাহিদার অতিরিক্ত সরকারি বই এনে বিক্রি করছে। এ জন্য তারা প্রশাসনের নজরদারি বাড়ানোর দাবি জানান।

পল্লবী থানার ওসি পারভেজ ইসলাম বলেন, ২ বস্তা বইসহ এক শিক্ষিকাকে আটক করা হয়েছে। মন্ত্রণালয়ের লোকজনকে খবর দেওয়া হয়েছে।

মিরপুর থানা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ফরিদা আক্তার লুনা বলেন, আজকের ঘটনা শুনেছি। আমরা এখন থানায় আছি। সরকারি বই বিক্রি করা নিষেধ।

একথা তো বইয়ের গায়েই লেখা রয়েছে। আমরা ওই স্কুলের ছাত্রছাত্রীর ব্যাপারে খোঁজ নেব, কতজন শিক্ষার্থী রয়েছে। এরপর পরবর্তী ব্যবস্থা নেব।

আরও পড়ুন