রবিবার, ০৩ Jul ২০২২, ০৩:০৯ অপরাহ্ন

এবার নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে মেয়ে কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় শাহনাজ বেগম নামের এক প্রবাসীর স্ত্রীর ফার্মে হামলা চালিয়ে ৬০০ মুরগির বাচ্চা মেরে ফেলেছে বখাটেরা। গতকাল শনিবার বিকেলে উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের বুরুমদী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আজ রবিবার ৬ ফেব্রুয়ারি দুপুরে পোল্ট্রি ফার্মের মালিক শাহনাজ বেগম বা

দী হয়ে সোনারগাঁ থানায় অভিযোগ করেছেন।

জানা যায়, উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের বরুমদী এলাকার সৌদি প্রবাসী নেছার আহমেদের স্ত্রী শাহনাজ বেগম। স্বামী বাড়িতে না থাকায় বাড়ির সঙ্গে একটি দোকান ও একটি পোল্ট্রি ফার্ম পরিচালনা করে আসছেন তিনি। স্বামী বিদেশে থাকায় তার ১৭ বছরের মেয়ে দোকানদারি করে। কয়েকদিন ধরে এলাকার সাদেক মিয়ার বখাটে ছেলে সাজ্জাদ হোসেন দোকানে এসে শাহনাজ বেগমের মেয়েকে উত্ত্যক্ত করে আসছেন। তিনি কুরুচিপূর্ণ কথাবার্তা বলেন এবং কুপ্রস্তাব দেন।

কিন্তু কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় বখাটে সাজ্জাদ হোসেন বিভিন্ন সময় ভয়ভীতি ও ক্ষয়ক্ষতির হুমকি দেন। গতকাল শনিবার ৫ ফেব্রুয়ারি বিকেলে শাহনাজের বাড়িতে কেউ ছিলেন না। এ সুযোগে সাজ্জাদ তার দলের বখাটেদের নিয়ে শাহনাজ বাড়িতে প্রবেশ করে পোল্ট্রি ফার্মে হামলা চালান। তারা ফার্মের ৬০০ মুরগির বাচ্চা পদদলিত করে মেরে ফেলেন।

এ ব্যাপারে এলাকাবাসীরা জানান, সাজ্জাদ হোসেন একজন বখাটে, উচ্ছৃঙ্খল ও মাদক সেবনকারী। তিনি এলাকায় বখাটেপনা করে বেড়ান। কেউ প্রতিবাদ করলে তাকে মারধরসহ ভয়ভীতির হুমকি দেন।

এ বিষয়ে ফার্মের মালিক শাহনাজ বেগম বলেন, ‘স্বামী বিদেশে থাকায় আমি সন্তানদের নিয়ে বাড়িতে একটি পোল্ট্রি ফার্ম করি ও বাড়ির সামনে একটি দোকান দেই। ওই দোকানে আমি ও আমার মেয়ে দোকানদারি করে। বখাটে সাজ্জাদ আমার মেয়েকে বিভিন্ন সময় উত্ত্যক্ত করাসহ কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছে। এতে রাজি না হওয়ায় সে তার বাহিনী নিয়ে আমার ফার্মের ৬০০ মুরগি মেরে ফেলেছে। এতে আমার ৪০ হাজার টাকার ক্ষতি হয়েছে। আমি তার শাস্তি চাই।’

এ ব্যাপারে সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান বলেন, একটি অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন