মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৭:৪২ পূর্বাহ্ন

নওগাঁয় ভুয়া ডি’সি, পু’লিশ সুপার, ডাক্তারসহ বিভিন্ন পেশার পরিচয়দানকারী সাদ্দাম হোসেন নামে এক প্রতারককে আ’টক করেছে পুলি’শ। সুন্দরীদের ফুঁসলিয়ে প্রতারণা ও তাদের সঙ্গে শা’রীরিক সম্পর্ক করাই নে’শা এ ব্যক্তির।

মঙ্গলবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান পু’লিশ সুপার প্রকৌশলী আব্দুল মান্নান মিয়া।

আট’ককৃত সাদ্দাম হোসেন যশোরের ঝিকরগাছা থা’নার আটুলিয়া গ্রামের কাওছার আলীর ছেলে। মঙ্গলবার ভোরে নওগাঁ শহরের একটি আবাসিক হোটেল থেকে স্ত্রীসহ তাকে আ’টক করা হয়।

পু’লিশ সুপার জানান, সাদ্দাম হোসেন সুন্দরী মেয়েদের পটানোর কৌশল হিসেবে নিজের লাইফস্টাইল চেঞ্জ করে। সে একেক সময় একেক মেয়ের কাছে একেক পেশার পরিচয় দিয়ে প্রেমের ফাঁ’দে ফেলে দৈ’হিক সম্পর্ক স্থাপন করে। এছাড়া তাদের কাছ থেকে বড় অংকের টাকাও লুটে নেয় সে। এর আগে, প্র’তারণা করে দুটি বিয়েও করে সাদ্দাম। একই সঙ্গে দুই স্ত্রীর ঘরে তার পুত্র ও কন্যা সন্তান রয়েছে।

তিনি আরো জানান, নওগাঁর এক নারী ভাইস চেয়ারম্যানের কাছ থেকে প্র’তারণা করে তিন লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে গা ঢাকা সাদ্দাম। পরে ওই ভাইস চেয়ারম্যান জানতে পারেন- সে শহরের একটি আবাসিক হোটেলে স্ত্রীসহ অবস্থান করছে। বিষয়টি তিনি পু’লিশকে জানালে অভিযান চালিয়ে স্ত্রীসহ হোটেল থেকে সাদ্দামকে আ’টক করা হয়।

পুলি’শ সুপার জানান, তার বিরুদ্ধে নওগাঁ সদর মডেল থা’নায় দুটি মাম’লা হয়েছে। এসব মা’মলায় তাকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

আরও পড়ুন