শুক্রবার, ০১ Jul ২০২২, ০১:৫৮ পূর্বাহ্ন

ভারতের কর্ণাটক রাজ্যের উদুপির গভর্নমেন্ট গার্লস পিইউ কলেজে হিজাব পরার দাবিতে বিক্ষোভ করেছিল কয়েকজন মুসলিম শিক্ষার্থী। এবার সেই বিক্ষোভকারী ছাত্রীদের ব্যক্তিগত তথ্য ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। ভুক্তভোগী ছাত্রীদের অভিভাবকেরা ইতোমধ্যেই এ বিষয়ে কর্নাটক পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন। উদুপির পুলিশ সুপার এন বিষ্ণুবর্ধনের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন বলে জানান ওই ছাত্রীদের অভিভাবক।

শুক্রবার ১১ ফেব্রুয়ারি এক অভিবাবক বলেন, ‘‘আমার মেয়ে এবং তার বান্ধবীদের নাম, ফেসবুক অ্যাকাউন্ট, মোবাইল নম্বর-সহ নানা তথ্য ইন্টারেনেটে শেয়ার করা হয়েছে। আশঙ্কা করছি, ভবিষ্যতে তাদের হুমকি দিতে সেগুলি ব্যবহার করা হবে।’’ এ বিষয়ে বিষ্ণুবর্ধন বলেন, ‘‘লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। ওই ছাত্রীদের থেকে এ সংক্রান্ত অনলাইন-তথ্য চাওয়া হয়েছে। তা পাওয়া গেলেই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া

উল্লেখ্য, জানুয়ারি মাসে কর্নাটকের উদুপির ওই কলেজে হিজাব পরিহিত পড়ুয়াদের ক্লাস করতে না দেওয়ার অভিযোগকে কেন্দ্র করে বিতর্কের সূত্রপাত ঘটে। জেলা প্রশাসনের ‘বার্তা’ পেয়ে কলেজ কর্তৃপক্ষই হিজাব পরে ক্যাম্পাসে না ঢোকার নির্দেশনা জারি করেছিল বলে অভিযোগ করেন।

ছয় জন মুসলিম ছাত্রীকে হিজাব পরে ক্যাম্পাসে ঢুকতে বাধা দেওয়া হয়। পরে ওই ৬ জন ছাত্রী তার প্রতিবাদ করেছিলেন। এর পর তাঁদের সমর্থনে বিক্ষোভ শুরু করেন স্থানীয় মুসলিম ছাত্রদের একাংশ। পাল্টা রাজ্য জুডে় হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলি হিজাব নিষিদ্ধের দাবিতে বিক্ষোভ শুরু করে।

আরও পড়ুন