সোমবার, ০৪ Jul ২০২২, ০৯:১৩ অপরাহ্ন

চাঞ্চল্যকর এ ঘটনাটি ঘটেছে রাজশাহীর তানোরে পৌর এলাকার ৭নং ওয়ার্ডের আকচা ভক্তিপুর মহল্লায়।এক কলেজছাত্রকে তিন দিন ধরে ঘরে আটকে রেখে জোরপূর্বক বিয়ের আয়োজনের অভিযোগ উঠেছে এক তরুণীর বিরুদ্ধে। তবে শেষপর্যন্ত তার সব আয়োজন বিফলে গেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত বুধবার বিকালে কলেজছাত্র মারুফ হোসেন (১৮) তানোর পৌর এলাকার আকচা ভক্তিপুর মহল্লায় বন্ধু রাকিবের বাড়িতে বেড়াতে আসেন। খবর পেয়ে রাকিবের বাড়িতে ওই তরুণী মারুফের সঙ্গে দেখা করতে যান।

পরে তিনি প্রতিবেশীদের মাধ্যমে তাকে তুলে নিয়ে তার বাড়িতে আটকে রাখেন বলে অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী মারুফ।

মারুফের বাড়ি তানোর উপজেলার পাঁচন্দর ইউপির কচুয়া মোহাম্মাদপুর দক্ষিণপাড়া গ্রামে। তার বাবার নাম তোফাজ্জল হোসেন।

মারুফের পরিবারের অভিযোগ, ঘটনার দিন বিষয়টি থানায় জানানো হয়। পুলিশ ওয়ার্ড কাউন্সিলরের মাধ্যমে সুরাহার জন্য বলে। কিন্তু ওয়ার্ড কাউন্সিলর মুনজুর রহমান টাকার বিনিময়ে কলেজছাত্র মারুফকে বুধবার সন্ধ্যা থেকে শুক্রবার দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত ওই তরুণীর ঘরে বন্দি করে রাখেন।

পরে সন্ধ্যায় তানোর পৌর এলাকার আকচা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে মুনজুর রহমানের নেতৃত্বে সালিশি বৈঠকে ওই তরুণীকে বিয়ে করার সম্মতি দেয় মারুফ। কিন্তু পুলিশের হস্তক্ষেপে বিয়ের আয়োজন বন্ধ হয়।

ওই তরুণী জানান, মারুফের সঙ্গে তার চার বছর ধরে প্রেম চলছে। শারীরিক সম্পর্কও হয়েছে। তবে পুলিশি বাধায় তার সঙ্গে বিয়ে হয়নি।

আরও পড়ুন