বৃহস্পতিবার, ৩০ Jun ২০২২, ০৯:২৭ অপরাহ্ন

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন শেষ হয়েছে গত ২৮ জানুয়ারি। তবে এখনও এই নির্বাচন নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা চলছে। মূলত সমিতির সাধারণ সম্পাদক পদ নিয়ে জায়েদ খান ও নিপুণের দ্বন্দ্ব এখন আদালতে গড়িয়েছে। এই এক নির্বাচন অনেক বদনাম কুঁড়িয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন চলচ্চিত্রের মুভিলর্ড খ্যাত মনোয়ার হোসেন ডিপজল।

তিনি বলেন, এখন এ বিষয়টি আদালতের। আদালতই ফয়সালা করবে। আদালত যে সিদ্ধান্ত দেবে, আশা করি তা সকলেই মেনে নেবে। এর বাইরে আর কোনো কথা বলা উচিৎ নয়। আদালতের রায়ে যে-ই সাধারণ সম্পাদক হোক, তাকেই মেনে নিতে হবে।

ডিপজল বলেন, শিল্পী সমিতির নির্বাচনের আগে সারাদেশের মানুষের ব্যাপক আগ্রহ ছিল। নির্বাচনের পর যে পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে, তাতে সুনামের পরিবর্তে বদনাম হচ্ছে। আমাদের মান-সম্মান বলতে কিছু থাকছে না। এক নির্বাচনে এত বদনাম আর কখনো হতে দেখিনি।

তিনি বলেন, শিল্পীদের শিল্পীর মতোই আচরণ ও কথাবার্তা বলতে হবে। এমন কিছু করা বা কথা বলা ঠিক না, যাতে অসম্মান হয়। এমনিতেই সিনেমা নাই, তার উপর নির্বাচন নিয়ে কোন্দল- এ নিয়ে মানুষ হাসাহাসি করছে। নানা সমালোচনা হচ্ছে। অনেকে বলছেন, সিনেমার খবর নাই, সমিতির নির্বাচন নিয়ে টানাটানি। এবার এসব ক্ষ্যান্ত দেয়া দরকার।

শিল্পীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আলোচনা-সমালোচনা, পক্ষ-বিপক্ষে কথা না বলে, আসুন, আমরা সবাই একসাথে মিলেমিশে থাকি। চলচ্চিত্রের উন্নয়ন কিভাবে করা যায়, এ নিয়ে ভাবি, কাজে মন দেই।

আরও পড়ুন