সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১২:২২ পূর্বাহ্ন

বগুড়ার শেরপুর উপজেলায় এক গৃহবধূকে ধ’র্ষণের অভিযোগে মজনু মিয়া নামে এক যুবককে গ্রে’ফতার করেছে পু’লিশ। শুক্রবার দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে ধ’র্ষণের শিকার নারী বাদী হয়ে শেরপুর থা’নায় তার বিরুদ্ধে ধ’র্ষণ মা’মলা করেন। মা’মলার পর রাতেই তাকে নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে পু’লিশ।

মজনু মিয়া রাজাপুর পশ্চিমপাড়া গ্রামের বাসিন্দা। তার বাবার নাম আরশেদ চৌকিদার।

পু’লিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সকালে ওই গৃহবধূর স্বামী বাজার করার জন্য বাড়ি থেকে বের হন। বাড়িতে গৃহবধূ ও তার শিশু সন্তান ছিল। একপর্যায়ে শিশু সন্তানকে নিয়ে ঘরে ঘুমিয়ে পড়েন ওই নারী। বেলা ১২ টার দিকে মজনু ওই গৃহবধূর ঘরে প্রবেশ করেন।

ঘরে ঢুকে মজনু গৃহবধূর স্প’র্শকাতর স্থানে হাত দেন। এতে গৃহবধূর ঘুম ভে’ঙে যায়। এরপরই তাকে ধ’র্ষণ করেন মজনু। ধ’র্ষণ শেষে ওই নারীকে বিভিন্ন ভয় দেখিয়ে ঘর থেকে বের হয়ে যান মজনু।

পরে ভু’ক্তভোগী নারী তার স্বামীর সঙ্গে ঘটনার বিষয়ে আলোচনা করে মা’মলার সিদ্ধান্ত নেন। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী রাতেই শেরপুর থা’নায় ধ’র্ষণ মামলা করা হয়।

শেরপুর থা’নার ওসি মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, ধ’র্ষণ মা’মলায় মজনুকে গ্রে’ফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন