শনিবার, ০২ Jul ২০২২, ১১:১৩ অপরাহ্ন

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. কামাল হোসেন মুফতী স্ট্যান্ড রিলিজ (বদলি) হলেও দায়িত্ব হস্তান্তর করছেন না। ১৭ বছর ধরে একই স্থানে দায়িত্ব পালন করা এই কর্মকর্তা স্ট্যান্ড রিলিজ ঠেকাতে তদবিরে ঢাকায় গেছেন বলে একাধিক সূত্র দাবি করেছে।

তবে গতকাল সোমবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) সকালে মোরেলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা হিসেবে ডা. শর্মী রায় যোগদান করেছেন।

এদিকে ডা. কামাল হোসেন মুফতীর নানান অনিয়ম দুর্নীতি ও সেচ্ছাচারিতার অভিযোগ তুলে গত রোববার (১৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে বাগেরহাট প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন মোরেলগঞ্জ উপজেলার বাসিন্দা বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. শাহাজাহান শেখ।

সাংবাদিকদের প্রশ্নে জবাবে তিনি বলেন, নানা অনিয়ম দুর্নীতির পরও স্থানীয় ক্ষমতাশীল নেতাদের ও কর্তৃপক্ষকে ম্যানেজ করে ১৭ বছর ধরেও এই স্থানে কর্মরত আছেন ডা. কামাল। তার নেতৃত্বে একটি চক্র প্রতিমাসে হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা। ৬ বার বদলি হলেও বিশেষ তদবিরে কোন এক অদৃশ্য শক্তির প্রভাবে তিনি মোরেলগঞ্জ উপজেলাতেই রয়ে গেছেন।

গতকাল সোমবার সকালে মোরেলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা হিসেবে যোগদান করা ডা. শর্মী রায় বলেন, তিনি এই উপজেলার স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা হিসেবে যোগদান করেছেন। তবে তাকে কোন প্রকার দায়িত্ব বুঝে দেওয়া হয়নি। লোকমুখে শুনেছেন ডা. কামাল হোসেন তদবিরে ঢাকায় গেছেন।

এ বিষয়ে জানতে ডা. কামাল হোসেন মুফতীর সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তিনি মোবাইল ফোন রিসিভ করেননি।

বাগেরহাটের সিভিল সার্জন ডা. জালাল উদ্দীন বলেন, মোরেলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা হিসেবে যোগদান করা ডা. কামাল হোসেন মুফতী সম্পর্কে তিনি কিছুই জনেন না। তবে খবর পেয়েছেন তিনি ঢাকায় অবস্থান করছেন।

গত ১ ফেব্রুয়ারি ডা. কামাল হোসেন মুফতীকে মোরেলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে স্ট্যান্ড রিলিজ করে পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যোগদানের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন