সোমবার, ০৪ Jul ২০২২, ০৭:০৮ অপরাহ্ন

ডাক্তারি সনদপত্র ছাড়াই প্রাণির চিকিৎসক পরিচয় দিয়ে গ্রামেগঞ্জে ভুল চিকিৎসা দিয়ে গরু মেরে ফেলা ও প্রতারণার অভিযোগে ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জের ৪০ জনের নামে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

গতকাল রোববার (১৩ ফেব্রুয়ারি) ঠাকুরগাঁও সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে মোতালেব হোসেন নামে স্থানীয় এক ব্যক্তি জনস্বার্থে এ মামলা দায়ের করেন। আদালত মামলাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য পিবিআই ঠাকুরগাঁওকে নির্দেশ দিয়েছেন।

মামলায় অভিযোগ ও ভুক্তভোগীরা জানিয়েছেন, বাংলাদেশ ভেটেরিনারী কাউন্সিলের নির্দেশনা মতে ডাক্তারি সনদ ছাড়া কেউ চিকিৎসক পরিচয় দিতে বা প্রাণির চিকিৎসা সেবা দিতে পারবে না। সে নির্দেশনা উপেক্ষো করে ডাক্তারি সনদ ছাড়াই পীরগঞ্জ উপজেলার গ্রামেগঞ্জে প্রাণি চিকিৎসক পরিচয় দিয়ে গরু ছাগলের ভুল চিকিৎসা দিয়ে আসছেন ৪০ ব্যক্তি। এছাড়াও রেজিষ্টার্ড চিকিৎসক ছাড়া এন্টিবায়োটিক লিখতে বা ব্যবহার করতে পারবে না মর্মে হাইকোর্টের নির্দেশনা থাকলেও তারা গরু ছাগলের চিকিৎসা দিতে গিয়ে অন্যান্য ওষুধের সঙ্গে উচ্চ মাত্রার এন্টিবায়োটিক ব্যবহার করে থাকেন। তাদের ভুল চিকিৎসায় অসংখ্য গরু ছাগল মারা যাচ্ছে।

এ বিষয়ে পীরগঞ্জ উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তার দায়িত্বে থাকা ডাঃ আবুল কালাম আজাদ বলেন, হাতুড়ে চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে তাদের করার তেমন কিছু নেই। আদালতে মামলা হয়েছে শুনেছি। দেখা যাক কি হয়।

আরও পড়ুন