সোমবার, ০৪ Jul ২০২২, ০৩:২৭ পূর্বাহ্ন

র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন (র‌্যাব) অভিযান চালিয়ে চিত্রনায়িকা পরীমনির বাসা থেকে বুধবার বিপুল পরিমাণ মাদ’কদ্রব্য ও দেশি বিদেশি ম’দ জব্দ করেন। সেই অভিযোগে গ্রে’প্তার করেন পরীমনিকে। এ নায়িকার থেকে তথ্য পেয়ে রা’তের মধ্যেই গ্রে’প্তার করেন ব্যবসায়ী ও চলচ্চিত্র প্রযোজক নজরুল রাজকে। তার বাসা থেকেও পাওয়া যায় মাদক। এগুলো ছাড়াও তার অফিসে প’র্নোগ্রা’ফি তৈরির নানান স’রঞ্জাম জব্দ করে র‌্যাব।

এর আগে অ’ভিযান চালিয়ে র‌্যাব গ্রে’প্তার করেন মডেল পিয়াসা ও মৌকে। তাদের কাছ থেকে পাওয়া বিভিন্ন তথ্যের ভিত্তিতে তদ’ন্ত করছে র‌্যাব।

বৃহস্পতিবার বিকেলে র‌্যাব সদর দপ্তরে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, পরীমনির নামে মা’দকদ্রব্য আইন ও নজরুল রাজের নামে মা’দক ও প’র্নোগ্রা’ফি আ’ইনে মা’মলা করা হবে। এছাড়া জানানো হয়, তাদের কাছ থেকে পাওয়া বিভিন্ন তথ্যের ভিত্তিতে তদন্ত করবেন র‌্যাব।

নায়িকা পরীমনি আ’টকের পর থেকেই চলচ্চিত্র অঙ্গনে আ’ত’ঙ্ক বিরাজ করছে। জানা যায়, আ’ইনশৃ’ঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে আরও অর্ধশত মডেল, অভিনেত্রী ও চিত্রনায়িকার নাম রয়েছে।

পরীমণির আ’টকের পর ঘুরে ফিরে আসছে শিরিন শিলার নাম। ক্যাসিনোকা’ণ্ডে বহিষ্কৃ’ত যুবলীগ নেতা আরমানের ঘনিষ্ঠজন ছিলেন এই শিলা। খুব অল্প সময়ে কোটি কোটি টাকার মালিক বনে গেছেন তিনি। চলচ্চিত্রে নিয়মিত কাজ না থাকলেও বিলাসবহুল জীবন যাপন করেন শিরিন শিলা।

এদিকে একাধিক সূত্রে জানা গেছে, শিরিন শিলা গ্রে’প্তার আ’তঙ্কে রয়েছে। শিরিন শিলা ছাড়াও এই তালিকায় নায়লা নাঈম, শুভা, মানসি, মৌরি ও আঁচল, মৃদুলার নাম ঘুরে ফিরে আসছে।

জানা গেছে, তালিকায় থাকা এসব মডেল-নায়িকারা মা’দক এবং অবৈ’ধ প’র্নোগ্রা’ফি ব্যবসার সঙ্গে জড়িত। – বাংলাদেশ জার্নাল

আরও পড়ুন