সোমবার, ১৬ মে ২০২২, ০১:২২ পূর্বাহ্ন

ডাক্তার পরিচয়ে একে একে করেছেন ১৪টি বিয়ে! কিন্তু অবশেষে ধরা পড়ে থামতেই হলো তাকে। গত ৪৮ বছর ধরে বিভিন্ন জায়গায় গিয়ে নিজের এই মিথ্যা পরিচয়ে ১৪ নারীকে বিয়ে করেছেন বিধুপ্রকাশ সোয়েন নামে ওই ব্যক্তি। ঘটনাটি ভারতের ওড়িশার। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

পুলিশ জানিয়েছে, সোমবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) ওই ব্যক্তিকে ভুবনেশ্বর থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ওই ব্যক্তি ওড়িশার কেন্দ্রপাড়া জেলার পাটকুরা থানার একটি গ্রামের বাসিন্দা। শুধু বিয়েই নয়, এই নারীদের কাছ থেকে টাকাও হাতিয়ে নিতেন তিনি। তবে নিজের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ওই ব্যক্তি।

ভুবনেশ্বর পুলিশের ডেপুটি কমিশনার উমাশঙ্কর দাশ বলেন, ১৯৮২ সালে প্রথমবার বিয়ে করেন বিধুপ্রকাশ। এরপর ২০০২ সালে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। ওই দুই ঘরে তার পাঁচ সন্তান রয়েছে। তবে ২০০২ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত বিভিন্ন বিয়ের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে অন্য নারীদের সঙ্গে বন্ধুত্ব গড়ে তোলেন তিনি। এরপর প্রথম দুই স্ত্রীর অজান্তে বাকিদের বিয়ে করেন।

ওড়িশার রাজধানী ভুবনেশ্বরে নিজের সবশেষ স্ত্রীর সঙ্গে বাস করছিলেন ওই ব্যক্তি। তার এই স্ত্রী দিল্লিতে একটি স্কুলের শিক্ষিকা। তিনি কোনোভাবে তার স্বামীর আগের বিয়েগুলোর কথা জানতে পারেন। এরপর পুলিশে অভিযোগ করেন।

উমাশঙ্কর বলেন, মধ্যবয়সী সিঙ্গেল নারীদের টার্গেট করতেন ওই ব্যক্তি। তবে মূলত ডিভোর্সি নারীদের সঙ্গেই বন্ধুত্ব করে তাদের বিয়ে করতেন তিনি। এরপর তাদের অর্থ নিয়ে পালিয়ে যেতেন ওই ব্যক্তি।

নিজেকে ডাক্তার পরিচয় দিয়ে আইনজীবী, ফিজিশিয়ান এবং উচ্চ-শিক্ষিত নারীদের বিয়ে করেছেন ওই ব্যক্তি। তার প্রতারণার শিকার হওয়া নারীদের তালিকায় প্যারা-মিলিটারিতে কাজ করা একজন রয়েছে বলেও জানান উমাশঙ্কর।

পুলিশের তথ্য মতে, দিল্লি, পাঞ্জাব, আসাম, ঝাড়খণ্ড ও ওড়িশাসহ সাত রাজ্যে বিয়ে করেছেন ওই ব্যক্তি। তবে তার প্রথম দুই স্ত্রী ওড়িশার বাসিন্দা।

আরও পড়ুন