শনিবার, ১৪ মে ২০২২, ০৯:৫৯ পূর্বাহ্ন

স্বাবলম্বী হওয়ায় মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহারের দ্বিকক্ষ বিশিষ্ট একটি ঘরসহ দুই শতক জমি ফেরত দিয়েছেন চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার জমির উদ্দীন বিশ্বাস। উপহারের ঘর ও জমি অন্য দরিদ্র অসহায় মানুষকে দেওয়ার জন্য জীবননগর উপজেলা প্রশাসনের কাছে ফেরত দিয়েছেন তিনি।

চুয়াডাঙ্গা জেলার জীবননগর উপজেলার আন্দুলবাড়ীয়া ইউনিয়নের শাহাপুর গ্রামের মৃত খেদের বিশ্বাসের ছেলে জমির উদ্দীন। সম্প্রতি কলা ব্যবসার লভ্যাংশ দিয়ে ৮ শতক জমি কিনেছেন তিনি। তাই প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া উপহারের ঘর ফেরত দিয়েছেন তিনি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুল ইসলাম জানান, জমিরের সততা দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে। আজ তার সঙ্গে কথা বলতে পারেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মো. জমির উদ্দীন বিশ্বাস বলেন, এক সময় আমার নিজের মাথা গোজার কোনো ঠাঁই ছিলো না। নিজের কোনো জমিও ছিলো না। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে মাথা গোজার জন্য ঘর ও জমি দিয়েছেন। নিজের মাথা গোজার ঠাঁই হওয়ার পর আমি নিশ্চিন্তে কলার ব্যবসা শুরু করি। আমি এখন বেশ স্বাবলম্বী। নিজের আয়ের টাকা দিয়ে ইতোমধ্যে ৮ শতক জমি কিনেছি এবং ওই জমির ওপর ঘরও তৈরি করেছি। যেহেতু আমার নিজের মাথা গোজার একটা ঠাঁই হয়েছে এ কারণে আমি প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া উপহারের ঘর ও জমি ফেরৎ দিয়েছি।

তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাকে স্বাবলম্বী হওয়ার পথ দেখিয়ে দিয়েছেন। আমি স্বাবলম্বী হয়ে নিজের টাকায় জমি কিনেছি এবং ঘর তৈরি করেছি। ফলে এখন আর এই ঘর ও জমি আমার প্রয়োজন নেই। সমাজে আরও ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার আছে এই ঘরটা এখন তাদের প্রাপ্য। আমি চাই এই ঘরটা অন্য কোনো ভূমিহীন পরিবারকে দেওয়া হোক।

জীবননগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরিফুল ইসলাম বলেন, দেশে যাতে কেউ গৃহহীন মানুষ না থাকেন সে জন্য প্রধানমন্ত্রী ভূমিহীন ও গৃহহীন ব্যক্তিদের জমি এবং ঘর প্রদান করেছেন। সেই ধারাবাহিকতায় জীবননগর উপজেলার শাহপুর গ্রামের দিনমজুর জমির উদ্দিনকে একটি ঘর দেয়া হয়েছিল।

তিনি আরও বলেন, জমির উদ্দীন পরিশ্রম করে স্বাবলম্বী হওয়ায় নিজ নামে জমি কিনে ঘর তৈরি করে বসবাস করছেন। এজন্য সে নিজ নামে অন্য স্থানে জমি কিনে ঘর করে বসবাস করায় প্রধানমন্ত্রীর দেয়া জমি ও ঘর হস্তান্তর করেন এবং অন্য কোনো দরিদ্র ব্যক্তিকে সেই ঘরটি দেয়ার জন্য অনুরোধ করেন। তার এই মহতী উদ্যোগের জন্য জীবননগর উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাকে সাধুবাদ জানানো হয়েছে।

আরও পড়ুন