বৃহস্পতিবার, ১৮ অগাস্ট ২০২২, ১১:১১ অপরাহ্ন

স্বপ্নের পদ্মাসেতু উদ্বোধনের অনুষ্ঠানে হাজির হয়ে বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী (বীরউত্তম) বলেছেন, পদ্মাসেতু নির্মাণের মধ্য দিয়ে দক্ষিণাঞ্চলের দক্ষিণাঞ্চলের ২১ জেলার মানুষের কাছে অগ্রাধিকারের জায়গায় অনেকটা সামনে চলে এলো আওয়ামী লীগ। তবে এই দুর্যোগের সময় এতটা উৎসব না করলে আরও ভালো হতো। আনুষ্ঠানিকতা এতটা না করে টাকার কিছু অংশ নিয়ে যদি নেত্রকোনা, কিশোরগঞ্জ, সিলেট, হবিগঞ্জের বন্যাদুর্গতদের জন্য খরচ করা হতো; আওয়ামী লীগের কর্মীরা যদি সেখানে কাজ করতো তবে আরও ভালো হতো।

শনিবার (২৫ জুন) দুপুর ১২টার দিকে পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উৎসবমুখর পরিবেশে নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ উদযাপন করছে দেশের ইতিহাসে অন্যতম বৃহৎ ও শ্রেষ্ঠ এই মেগাপ্রজেক্টের উদ্বোধন। নানা প্রতিকূলতাকে উপেক্ষা করে পদ্মাসেতু আজ বাংলাদেশের গৌরবোজ্জ্বল বাস্তবতা। সে প্রসঙ্গে বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী (বীরউত্তম) বলেন, কোনো কাজ থাকলে তার বাধা থাকে। আর বাধা অতিক্রম করে কাজ করার আনন্দ আছে। আজ যে এতকিছুর পর পদ্মাসেতু হয়েছে, তাতে হরতাল করার কিছু নেই, আবার দুঃখিত হবারও কিছু নেই।

কাদের সিদ্দিকী আরও বলেন, যারা সমালোচনা করেছে তারাও ঠিক করেছে; যারা পদ্মাসেতু নির্মাণে আশান্বিত হয়েছে তারাও ঠিক করেছে। যারা আগে সমালোচনা করেছে, আগে যাদের বিশ্বাস হয়নি তারা তো এখন দেখতেই পাচ্ছে যে, পদ্মাসেতু পরিণত হয়েছে বাস্তবতায়। এজন্য তাদেরকে মাটির সাথে মিশিয়ে ফেলার কিছু নেই।

আমরা মানুষকে বড় বেশি অপমান করার চেষ্টা করি। মানুষ তো ভুল করেই, ভুল করবেই। কেউ ভুল করলেই যে সে পৃথিবীতে বাস করার অধিকার হারিয়ে ফেলবে তা কিন্তু নয়। তবে ভোটের রাজনীতিতে দক্ষিণাঞ্চলের ২১ জেলার মানুষের কাছে। নিশ্চয়ই অগ্রাধিকারের জায়গায় আওয়ামী লীগ আসবে। কেউ কাজ করলে কেন অগ্রসর হবে না? কিন্তুই কোনো কোনো ত্রুটিও আছে।

আরও পড়ুন