বৃহস্পতিবার, ১৮ অগাস্ট ২০২২, ১০:০৬ অপরাহ্ন

বৃহস্পতিবার মধ্যরাতের পোস্ট। ফেসবুকে লিখে আ’ত্মহননের চেষ্টা উঠতি মডেল অভিনেত্রী দেবলীনা দে’র। ঠিক কী লিখেছিলেন দেবলীনা? সেই চিঠি প্রকাশ করেছে আনন্দবাজার, যা কিনা আ’ত্মহ’ত্যা করতে যাওয়ার আগে ফেসবুকের পাতা থেকে মুছে দিয়েছিলেন উঠতি মডেল-অভিনেত্রী।

কেন আত্মহ’ত্যা করতে গিয়েছিলেন তিনি? একটি লেখায় দিয়েছেন তার বিশদ বিবরণ। তিনি লিখেছেন ‘আমার মৃ’ত্যুর জন্য সবাই দায়ী, বিশেষত আমার পরিবার এবং মা। পৃথিবীর সবচেয়ে বড় বোকা এবং অ’বা’স্তববাদী মানুষ…’ ‘আমার ভাই মা’দকাসক্ত। গাঁ’জা, চরস, পাতা, ম’দ কী না খায়। টাকা দেয় মা। কোনও কাজ করে না। উল্টে বাড়ি ভা’ঙচুর করে । হাতের কাছে ছু’রি, কাঁ’চি যা পায় তা দিয়ে মা’রতে আসে।’

নিজের ভ’য়ানক যন্ত্রণার কথা প্রকাশ করেছেন উঠতি অভিনেত্রী। ভাই যে তার কাজকে বে’শ্যাবৃ’ত্তিরই না’মান্তর ভাবে এবং তাঁকে অ’শ্লীল কথা বলে, তা চিঠিতে প্রকাশ করতে তিনি পিছপা হননি। এরপরই তিনি শুভজিৎ রক্ষিত বলে একজন ভদ্রলোকের কথা জানিয়েছেন এবং লিখেছেন শুভজিৎ তাঁকে নিয়মিত টাকা পাঠান। তাতেই তিনি বেঁচে আছেন।

তিনি জানাতে ভোলেন না, এই অর্থ নিতে তিনি বাধ্য হয়েছেন। এর পরে তিনি উল্লেখ করেন কৌশিক রায় নামে আরও এক ব্যক্তির কথা। মডেলের দাবি, কৌশিক তাঁকে ব্যবহার করে অন্য একটি মেয়েকে বিয়ে করেছেন। বিয়ে করে শান্তিতে আছেন। এ ভাবেই তাঁর পরিচিত বিভিন্ন মানুষের নামে অভিযোগ জানিয়েছেন তিনি। প্রত্যেকের সম্মিলিত ব্যবহারে তাঁর এই করুণ পরিণতি চিঠির মাধ্যমে বোঝাতে চেয়েছেন।

আরও পড়ুন