শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ০২:২১ পূর্বাহ্ন

দেশের বন্যা কবলিত মানুষদের সাহায্য এগিয়ে আসা আলোচিত ব্যক্তিত্বদের একজন চট্টগ্রাম-৬ আসনের সংসদ সদস্য এবিএম ফজলে করিম চৌধুরীর জ্যেষ্ঠ সন্তান ফারাজ করিম চৌধুরী।বড় পরিকল্পনার মাধ্যমে তিনি বন্যাদুর্গত মানুষের পাশে দাঁড়াতে নানা ভাবে কাজ করে চলেছেন। এখন পর্যন্ত ১ কোটি টাকা ব্যয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে ৩০ হাজারের বেশি পরিবারে ত্রাণ সরবরাহ করেছেন তিনি।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক জনপ্রিয় এই ব্যক্তিত্ব তার জনপ্রিয়তাকে কাজে লাগিয়ে বন্যার্তদের জন্য অনুদান সংগ্রহ করে তাদের পাশে দাড়িয়েছেন। বেশ বন্যা কবলিত এলাকাতে অবস্থান করেছেন এই যুবক। সেখানে বানভাসী মানুষদের জন্য শুকনো খাবার থেকে শুরু করে প্রয়োজনীয় সকল সাহায্য দিয়ে পাশে দাড়িয়েছেন। শুধু ত্রান দিয়েই নয়, বন্যার্তদের সহযোগিতায় একের পর এক নজির গড়েছেন ফারাজ চৌধুরী। সম্প্রতি বন্যায় ঘর হারানো ৫০১ পরিবারকে ১ কোটি টাকা ব্যয়ে ঘর নির্মাণ ও সিলেটে আরও ১ কোটি টাকা খরচ করে ১০০ গরু দিয়ে কোরবানির দিন মাংস বিতরণের উদ্যোগ নিয়েছেন তিনি।

ইতিমধ্যেই তিনি লাখ লাখ টাকার ত্রাণ পৌছে দিয়েছেন বানভাসী অসহায় মানুষের কাছে। এছাড়া ফিলিস্তিন দূতাবাস থেকে ২৫ লাখ টাকা ব্যয়ে ২৪ টন খাদ্যসামগ্রী এবং ঢাকাস্থ ওআইসিভুক্ত দেশগুলোর পক্ষ থেকে ১০ লাখ টাকা ব্যয়ে আরও ৯ টন খাদ্যসামগ্রী ফারাজ করিম চৌধুরীর মাধ্যমে সিলেটের কানাইঘাট ও জৈন্তাপুর এলাকায় দেওয়া হচ্ছে। যা এখনো চলমান রয়েছে। ত্রাণসামগ্রী বিতরণের পাশাপাশি দুর্গত এলাকায় নারীদের জন্য ৫ হাজার স্যানিটারি ন্যাপকিন বিতরণ করেছেন ফারাজ করিম চৌধুরী৷ সেই সঙ্গে ঘর নির্মাণের জন্য ১ কোটি টাকা ব্যয়ে মালামাল আনার গাড়ি ভাড়া, শ্রমিকদের বেতন ও আনুষঙ্গিক খরচসহ উন্নত মানের টিন ও বাঁশ কিনেছেন। যেগুলো দিয়ে নিজেদের মজুরিতে ৫০১টি ঘর নির্মাণ করা হবে। এসব ঘরের মধ্যে ৩৫০টি হবে সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে, ১৫০টি হবে কুড়িগ্রামে ও ১টি হবে নেত্রকোনায়।

এছাড়া সিলেটের বন্যার্ত মানুষের জন্য ১০০টি গরু কোরবানির উদ্যোগ নিয়েছেন ফারাজ করিম চৌধুরী। এই কার্যক্রমে গরু আনা-নেওয়া, কোরবানির আগপর্যন্ত খাবার খাওয়ানো, কসাইদের বেতন ও আনুষঙ্গিক খরচ বাবদ প্রায় ১ কোটি টাকা খরচ হবে। প্রতিটি গরু ১০০ কেজি করে ১০ হাজার কেজি গরুর মাংস প্রতিজনকে ১ কেজি করে ১০ হাজার মানুষের মাঝে বিতরণ করার জন্য প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। সেই সঙ্গে বন্যার্ত এলাকার মানুষের জন্য আরো ৫ হাজার পাঞ্জাবি ও শাড়ি বিতরণ করা হবে। এতিমধ্যে ফারাজ করিম চৌধুরীর তার কর্মকান্ডে দেশের সর্বমহলে প্রশংসিত হয়েছে। একের পর এক ব্যতিক্রমী কর্মকাণ্ড সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তুলে ধরে দেশেজুড়ে তিনি অর্জন করেছেন তুমুল জনপ্রিয়তা।

আরও পড়ুন