শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২, ০৪:১৭ পূর্বাহ্ন

গত ১০ জুলাই দেশে পবিত্র ঈদুল আজহা (কোরবানির ঈদ) উদযাপিত হয়। এই ঈদের ছুটির আগে সাত দিনেই ৯০ কোটি ৯৩ লাখ ডলার দেশে পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা।আন্তঃব্যাংক মুদ্রাবাজারের বর্তমান বিনিময় হার (প্রতি ডলার ৯৩ টাকা ৪৫ পয়সা) হিসেবে টাকার অঙ্কে সাতদিনের এই রেমিট্যান্সের পরিমাণ সাড়ে আট হাজার কোটি টাকা। গড় হিসেবে প্রতিদিন এসেছে এক হাজার ২১৪ কোটি টাকা।

বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তারা বলছেন, বাংলাদেশের ইতিহাসে এর আগে কখনো এক সপ্তাহে এতো রেমিট্যান্স দেশে আসেনি। এদিকে এশিয়ান ক্লিয়ারিং ইউনিয়নের (আকু) প্রায় ২ বিলিয়ন ডলার আমদানি বিল পরিশোধের পরও রিজার্ভও ৪০ বিলিয়ন ডলারের ওপরে অবস্থান করছে।

বাংলাদেশ, ভুটান, ভারত, ইরান, মিয়ানমার, নেপাল, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা ও মালদ্বীপ বর্তমানে আকুর সদস্য। এই দেশগুলো থেকে বাংলাদেশ যেসব পণ্য আমদানি করে তার বিল দুই মাস পরপর আকুর মাধ্যমে পরিশোধ করতে হয়।

আন্তর্জাতিক মানদণ্ড অনুযায়ী, একটি দেশের কাছে অন্তত তিন মাসের আমদানি ব্যয় মেটানোর সমপরিমাণ বিদেশি মুদ্রা মজুদ থাকতে হয়।

রেমিট্যান্স প্রবাহে নিম্নমুখী ধারায় শেষ হয় ২০২১-২২ অর্থবছর। ৩০ জুন শেষ হওয়া এই অর্থবছরে ২১ দশমিক শূন্য ৩ বিলিয়ন ডলারের রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা। যা আগের বছরের চেয়ে ১৫ দশমিক ১২ শতাংশ কম। ২০২০-২১ অর্থবছরে ২৪ দশমিক ৭৮ বিলিয়ন ডলার পাঠিয়েছিলেন প্রবাসীরা।

আরও পড়ুন