শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ১২:৪৯ পূর্বাহ্ন

বাংলা চলচ্চিত্রের অভিনেতা অনন্ত জলিল ও অভিনেত্রী বর্ষা বগুড়া গিয়ে তাদের ভক্ত সোহেলের পায়ের চিকিৎসায় দুই লাখ টাকা সহায়তা করেছেন। সদ্য মুক্তি পাওয়া ‘দিন দ্য ডে’ সিনেমার প্রচারের অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার হেলিকপ্টারে বগুড়া এসে তারা দেখা করেন সোহেলের সঙ্গে। পরে তার পায়ের চিকিৎসার জন্য নগদ দুই লাখ টাকা তুলে দেন অনন্ত-বর্ষা।

এ ছাড়া সোহেলকে থাইল্যান্ডে নিয়ে চিকিৎসা করানোরও আশ্বাস দেন অনন্ত জলিল।

বৃহস্পতিবার বিকেলে বগুড়া শহরের চেলোপাড়া মধুবন সিনেপ্লেক্সে তিনি সমবেতদের উদ্দেশে এসব বলেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার দুপুরে হেলিকপ্টারে বগুড়ার কাহালুতে প্রতিবন্ধী ভক্ত সোহেল রানাকে (২৫) দেখতে যান চিত্রনায়ক অনন্ত জলিল ও তার স্ত্রী চিত্রনায়িকা বর্ষা। বৃহস্পতিবার বেলা পৌনে ১টার সময় তাদের বহন করা হেলিকপ্টার উপজেলার কালিপাড়া উচ্চ বিদ্যালয় অবতরণ করে। তাদের ভক্ত কাহালু উপজেলার নিমারপাড়া গ্রামের মোজামের ছেলে সোহেল রানার মাধ্যমে খবর পেয়ে অনন্ত ও বর্ষাকে দেখতে অনেক আগে থেকেই কালিপাড়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অসংখ্য মানুষ জড়ো হন।

জানা গেছে, অনন্ত ও বর্ষার সঙ্গে অনেক আগে থেকে সোহেল রানার পরিচয় আছে। সেই পরিচয়ের সুবাদে অনন্ত ও বর্ষা তার এলাকায় আসেন। সোহেলসহ নিমারপাড়ায় আয়োজিত এক সমাবেশে অংশ নেন অনন্ত ও বর্ষা। প্রায় এক ঘণ্টা তারা সেখানে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন।

সমবেত জনতার উদ্দেশে তারা বলেন, গ্রামের মানুষ খুব সহজ সরল। গ্রামের অপরূপ দৃশ্য দেখে আমরা সব সময় মুগ্ধ হই। গ্রামের মানুষের ফলানো ফসলই বাঁচিয়ে রাখে শহরের মানুষকে।

সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন কাহালু উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব মো. হেলাল উদ্দিন কবিরাজ, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মান্নান, নন্দীগ্রাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন রানাসহ স্থানীয় ব্যক্তিবর্গ।

এরপর বৃহস্পতিবার বেলা ৩টায় বগুড়া মধুবন সিনেপ্লেক্সে দর্শকদের সঙ্গে ‘দিন দ্য ডে’ সিনেমা দেখতে বসেন দুই তারকা। কিছুক্ষণ পর হল থেকে বেরিয়ে দর্শক ও সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন অনন্ত জলিল। তাদের সঙ্গে সোহেল রানাও উপস্থিত ছিলেন। এ সময় অনন্ত জলিল পায়ের চিকিৎসায় তার হাতে নগদ ২ লাখ টাকা তুলে দেন। সোহেলকে থাইল্যান্ডে নিয়ে উন্নত চিকিৎসার মধ্যে দিয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনারও আশ্বাস দেন অনন্ত।

অনন্ত জলিল আরো বলেন, দিন দ্য ডে একটি বিগ বাজেটের সিনেমা। এ সিনেমার রিভিউ জানতে ঢাকার বেশ কয়েকটি হলে গিয়েছেন তারা। দর্শকদের সঙ্গে সিনেমা দেখেছেন।

দর্শক হলমুখী হচ্ছে বলেও তিনি জানান। আগামীতে ‘নেত্রী দ্য লিডার’ সিনেমা মুক্তি পাবে। যার প্রায় ৫০ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে।

সোহেল রানা বলেন, ‘আমি কোনো দিন ভাবতে পারিনি আমাকে দেখার জন্য বগুড়া আসবেন অনন্ত জলিল ও বর্ষা। তাদের প্রথম সিনেমা ‘খোঁজ দ্য সার্চ’ দেখার পর থেকে অনন্ত জলিলের অভিনয় আমার মনে জায়গা করে নেয়। তারপর থেকে তার প্রতিটি সিনেমা আমি দেখি এবং তার নামে নানান সামাজিক কর্মকাণ্ড নিজ এলাকায় করে আসছি। আমার চিকিৎসার জন্য নগদ টাকা দিয়েছেন নায়ক অনন্ত জলিল। আমি অভিভূত এমন সাদামনের মানুষকে কাছে পেয়ে’।

বিকেলে বগুড়ার মধুবন সিনেপ্লেক্সে অনন্ত ও বর্ষা আসার খবরে দর্শকদের ঢল নামে। হল কর্তৃপক্ষ ছাড়াও সাংবাদিক, সুধীজন ও অন্যান্য অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন