শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২, ০৫:০৬ পূর্বাহ্ন

শ্রীলঙ্কার মতো সংকটময় পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে পারে এশিয়ার আরও বেশ কয়েকটি দেশ। সেই তালিকায় আছে বাংলাদেশও। এই শঙ্কার কথা জানিয়েছে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল, আইএমএফ।

বলা হয় বৈদেশিক মুদ্রা না থাকায় লঙ্কান সরকার আমদানি করতে পারছেন না খাবার, জ্বালানি এমনকি ওষুধের মতো অতি প্রয়োজনীয় পণ্যও। এক বছরের ব্যবধানে খাবারের দাম বেড়েছে ৮০ শতাংশ পর্যন্ত। আইএমএফ প্রধান ক্রিস্টালিনা জর্জিভা বলেন, যেসব দেশের উচ্চমাত্রার ঋণ আছে এবং নীতিমালার পরিসর সীমিত তাদেরকে পড়তে হবে বাড়তি চাপের মুখে। সেসব দেশের জন্য শ্রীলঙ্কার পরিস্থিতি একটি সতর্ক বার্তা বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

আইএমএফের তথ্য দিয়ে করা বিবিসির একটি প্রতিবেদনে প্রকাশিত তালিকায় বাংলাদেশ ছাড়াও রয়েছে, পাকিস্তান, লাওস ও মালদ্বীপের নাম। বলা হচ্ছে, বাংলাদেশে গত ৮ বছরের মধ্যে মে মাসে সর্বোচ্চ ৭ দশমিক ৪২ শতাংশে পৌঁছেছে মূল্যস্ফীতির হার।

রিজার্ভের পরিমাণ কমতে থাকায় এরই মধ্যে সরকার অপ্রয়োজনীয় পণ্যের আমদানি বন্ধ করার নীতি অনুমোদন দিয়েছে। প্রবাসীদের আয় (রেমিট্যান্স) দেশে পাঠানোকে উৎসাহিত করতে এ-সংক্রান্ত নীতিমালা আরও সহজ করেছে সরকার। সেই সঙ্গে সরকারি কর্মকর্তাদের বিদেশ ভ্রমণ কমিয়ে আনা হয়েছে।

আরও পড়ুন