বৃহস্পতিবার, ১৮ অগাস্ট ২০২২, ১০:১৭ অপরাহ্ন

প্যারাসিটামলসহ ৫৩টি নিত্যপ্রয়োজনীয় ওষুধের দাম বাড়ালো সরকার। কোনো কোনো ওষুধের দাম বাড়ানো হয়েছে ৯৯ থেকে ১৩২ শতাংশ পর্যন্ত। ৭০ পয়সার প্যারাসিটামলের দাম এখন ১ টাকা ২০ পয়সা। ২৪ টাকার ইনজেকশনের দাম বেড়ে হচ্ছে ৫৫ টাকা। ৯ টাকার নাকের ড্রপ হয়েছে গেছে ১৮ টাকা। এখনও নতুন দামের ওষুধ বাজারে ছাড়েনি কোম্পানিগুলো। তবে এরই মধ্যে ফার্মেসিতে সংকট লেগে গেছে জীবনরক্ষাকারী এ ওষুধগুলোর।

বাড়ানো হয়েছে প্যারাসিটামল গ্রুপের সব ওষুধের দাম। ৭০ পয়সার ৫শ এমজি প্যারাসিটামল ট্যাবলেটের দাম হচ্ছে প্রায় দেড় টাকা। ১৮ টাকার বোতলজাত ড্রপস হয়ে গেছে ৩০ টাকা। বেড়েছে অ্যাসপিরিন, এজিথ্রোমাইসিন, জিম্যাক্স এমনকি স্যালাইনের দামও। ৩৫ টাকার ট্যাবলেট ৫৫ টাকা, সাড়ে ৪ টাকার স্যালাইন হয়ে যাচ্ছে ৬ টাকা পিস।

ফার্মেসিগুলোতে এখনও আগের দামে কেনা ওষুধ। কিন্তু অনেকখানেই বিক্রি হচ্ছে নতুন দামে। ৩০ জুন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে ওষুধের মূল্য নির্ধারণ কমিটির ৫৮তম সভায় ১৯ টি জেনেরিকের ৫৩ ওষুধের দাম পুনঃনির্ধারণের এ সিদ্ধান্ত হয়েছে।

নতুন দামকে যৌক্তিক বলেই দাবি ওষুধ প্রশাসন অধিদফতরের পরিচালক আইয়ুব হোসেনের। তার দাবি, হুট করে নয়, টেকনিক্যাল কমিটির সুপারিশেই বাড়ানো হয়েছে দাম। এদিকে ওষুধ কিনতে আসা প্রবীণ নাগরিক ফাতেমার প্রশ্ন, আর কতো বাড়বে খরচ?

আরও পড়ুন